মিলাদ শরীফের জন্যে কিছু কাসিদা জেনে নিন

মিলাদ শরীফের জন্যে কিছু কাসিদা জেনে নিন
মিলাদ শরীফের জন্যে কিছু কাসিদা

মিলাদ শরীফের কাসিদা

লেখকঃ মোঃ ইসমাইল হোসাইন

০১. কুল কা’য়িনাত সবাই বলেন, আজকে মোদের ঈদের দিন। এ জমিনে তাশরীফ আনলেন রহমাতুল্লিল আলামীন।


০১. আল্লাহুম্মা ছল্লীআলা’ সাইয়্যিদিনা মাওলানা রাসুলাল্লাহ। ওয়াআ’লা আলি সাইয়্যিদিনা মাওলানা হাবিবিল্লাহ।


০২. গাছে চিনলো মাছে চিনলো চিনলো বনের হরিণে উম্মত হইয়া চিনলাম নারে দুঃখ রইলো মনেতে।


০৩. আল্লাহুম্মা ছল্লীআলা’ সাইয়্যিদিনা মাওলানা রাসুলাল্লাহ। ওয়াআ’লা আলি সাইয়্যিদিনা মাওলানা হাবিবিল্লাহ।


০৪. মদিনার সবুজ মিনারে দেকে নিন আপনার কিনারে চুমিবো মুবারক ক্বদম এই আশা গোলামের অন্তরে,


০৫. দিদার হো রওজেকি তামান্না, দিলমে হো ইয়েহি তারানা, হো ক্যায়সে মদিনা যানা, ব্যকুল হ্যায় দিলে দিওয়ানা,


০৬. আরশো কা ক্বাবা মদিনা, পরশো কা ক্বাবা মদিনা , ক্বাবাতুল ক্বাবা মদিনা, জান্নাত কা নকশা মদিনা।


০৭. গিরনে ওয়া-লোকো সামালো , মরণে ওয়ালোকো বাঁচালো , ক্বায়েদ ছে হামকো ছুড়ালো , আপনি দামান মে ছুপালো,


০৮. আপনি তো শাহে মাদিনা, গোলাম যে আপনার দিওয়ানা, দিদারে রওজা পাকে আপনার , নিয়ে যান শোনার মদিনা।


০৯. মদিনার অলি-গলিতে

মন চায় ছুটিয়া যাইতে

রওজায়ে আতহার চুমিতে

দরুদ ও সালাম ভেজিতে।


১০. হে নবী আপনি কি দেখা দিবেন না

হে নবী আপনি কি মদিনা নিবেন না

মনে তো মানেনা মানা

যেতে চায় সোনার মদিনা।


১১. জিবরিলে ডাকে বারে বার

খুলে দাও আসমানের দুয়ার

এসেছেন নবীদের সরদার

করিতে মাওলার...ও দিদার।


১২. নবীজির পিতা আবদুল্লাহ

নবীজির মাতা আমিনা

নবীজির দুধমা হালিমা

নবীজির রওজা মদিনা।


১৩ নবীজি নূরের-ই খনি

সেই নূরে জগত নূরানী

পরকালের খেয়া তরুণী

ভুলনা মোরা ভুলিনি।


১৪. বার-ই রবিউল আউয়ালে

সোমবারে অতি সকালে

ধরায় আসিলেন নূরের-ই ছেলে

আমিনা মায়ের-ই কোলে।


১৫. আশেকদের মনের বেদনা

বুঝাই-লে কেহ বোঝেনা

শুনাইলে কেহ শোনেনা

শোনেন যে শাহে মাদিনা।


১৬. নবীদের সম সাজিয়া

আসিলেন ধরায় নামিয়া

উম্মাতকে এতিম বানাইয়া

ঘুমাইলেন সোনার মাদিনা।


১৭. নবীজি আসিয়া ধরায়

থাকিতেন হেরার-ই গুহায়

কাঁদিতেন উম্মতের মায়ায়

এখন-ও কাঁদেন মাদিনায়।


১৮. নবীগো আপনার-ই জন্য

হয়েছি মোরা যে ধন্য

মোদের-কে... করে লন গন্য

হই যেন হিযবুল্লাহর সৈন্য।


১৯. নবী-গো তুমিযে নুরেতে পয়দা

সেই নুরে তামাম জাহান পয়দা

তুমি যে কাবার-ও কাবা

আশিকদের গলার-ও মালা।


২০. মদিনার পানে চাহিয়া

কাঁদি-যে গজল গাহিয়া

দেখা দাও পর্দা উঠাইয়া

দেখিবো নয়ন ভরিয়া।


২১. নবীগো তুমিযে ঘুমাওনা রাতে

দেখা দাও আশিকদের সাথে

ডেকে লও তোমার রওজাতে

দরুদ ও সালাম ভেজিতে।


২২. কানে শুনিলাম সোনার মদিনা

দেখিবার নসিব হলোনা

নিয়ে যান রওজা মাদিনা

আশিকদের মনে মানেনা।


২৩. মা-বাবাকে কবরে রাখিয়া

কাঁদিযে মিলাদ পড়িয়া

মিলাদের উছিলাতে

মা-বাবাকে নিয়েন জান্নাতে।


২৪. মোরা-যে রুহানী আওলাদ

করি-যে কাসিদা মিলাদ

পেতে চাই আপনার মোলাকাত

হাশরে করবেন শাফায়াত।


২৫. আমাদের মরণ ও কালে

নবী আপনাকে কাছে-তে পেলে

থাকবেনা মরণ যন্ত্রনা

এই টুকু-ই আমার কামনা।


২৬. আপনার-ই উছিলা দিয়া

কাঁদিলেন আদম ও হাওয়া

মাবুদের হইলো দয়া

কবুল-ও করিলেন দোয়া।


২৭. হে নবী মদিনায় নেবেন নি

নিলে-যে কেনই বা নেন না

কোন পথে হবো রওয়ানা

বলে দেন শাহে মদিনা।


২৮. হে নবী মদিনা হইতে

সব কিছুই পারেন দেখিতে

মোদের লাশ কবরে রাখিলে

নিয়েন গো আপনার নিজ কোলে।


২৯. হে নবী এই মাহে রমজানে

সালাম পাঠাই ঐ মদিনার পানে

দেখা দেন রাতের নিরালে

মিনোতি আপনার চরনে।


৩০. আপনার-ই হাতের ইশারায়

চন্দ্র-যে দ্বিখন্ডিত হয়

আপনার-ই মুখের-ই লালায়

কাঁটা হাত জোড়া লেগে যায়।


৩৪. আপনার-ই চেহারার নূরে

মা আয়শা সূচ পেলেন খুজে

আপনার-ই ঘামের-ই সাথে

ঝড়ছে নূর ঝড়ছে অঝোড়ে।


৩২. আপনি-যে নূরের-ই রবি

নিখিলের ধ্যানেরই ছবি

আপনি না এলে দুনিয়ায়

আধারে ডুবিতো সবই।


৩৩. মিলাদে হৃদয়ে শান্তি পাই

এই উছিলায় আপনার দিদার চাই

মনে চায় রওজায় ছুটে যাই

ওগো চরনে দিয়েন মোদের ঠাই।


৩৪. হে নবী সালাম লন আমার

হে রাসূল সালাম লন সবার

ইয়া হাবিব সালাম লন এই(জলছার)বাংলার

আমরাতো সবাই গুনাহগার।


৩৫. তোমারি নূরের আলোকে

জাগরন এলো ভূলোকে

গাহিয়া উঠিল বুলবুল

হাসিলো কুসুম ফুলোকে।


৩৬. আশেকের চোখের-ই পানি

ঝড়িছে দিবা রজনী

তুমি যে নূরের-ই রবি

তোমারই প্রেমে পাগল যে সব-ই।


৩৭. আরবের মরু প্রান্তরে

পাঠাইলেন প্রভূ আপনারে

আবদুল্লাহর জীর্ণ কুটিরে

আমেনা মায়ের-ই উদরে।


৩৮. তোমাকে দেখিবার আশায়

কত লোক গেল মদিনায়

সদা মন থাকে ব্যাকুল হয়

কবে যে যাব মদিনায়।


৩৯. উহুদের ময়দানে যিনি

দান্দান-ও শহিদ ও করি

বানাইলেন ইসলামের তরী

সেই তরী নিবেন পার করি।


৪০. যদি হইতাম মদিনা বাসি

সর্বদায় রওজায়ে আসি

মিটাইতাম মনের পিপাসা

দূর হত সকল দুর্দশা।


৪১. মোদের এই মিলাদ ও দোয়ায়

যতটি হরফ হয় গোনায়

ততোধিক সালাম ও তোমায়

পাঠাইলাম সোনার মাদিনায়।


৪২. তুমি যে রহমাতে ওয়ালা

যে দেখিলো তোমার চেহারা

তার কপাল কতই যে ভালা

পেলো যে জান্নাতের মালা।


৪৩. হে নবী আপনিযে মোদের কান্ডারি

নেই কেহ মোদের দরদী

হাশরে উম্মত ও বলি

কোলেতে নিয়ে-ন ও তুলি।


৪৪. উম্মতের নাজাত লাগিয়া

জারে-জার হতেন কাঁদিয়া

কত যে রইলেন না খাইয়া

উদরে পাথর বাধিয়া।


৪৫. সৃজিলেন প্রভু আপনার নূর

সেই নূরে আধার হলো দূর

জীন-ইনসান ফেরেশতারাজি

দূরুদ ও পড়ে আপনার-ই।


৪৬. আপনি যে মোদের কান্ডারি

নেই কেহ মোদের দরদী

হাশরে উম্মাত ও বলি

কোলেতে নিয়েন ও তুলি।


৪৭. উড়িল আল্লাহর বাণী

পোহালো দুঃখ রজনী

করিল জগৎ নূরানী

আমেনার নয়ন ও মণি।


৪৮. উড়িল দোয়া-যে খলিল

হইলো যে তাওরাত ও বাতিল

মানসূখ ও ঈসার-ই ইঞ্জিল

হইলো কোরআন ও নাযিল।


৪৯. মদিনায় তাওফিক নাই যাওয়ার

সালাম ও পাঠাই বারে বার

আমরা যে উম্মাত গুনাহগার

হাশরে করে নিবেন পার।


৫০. সবুজ ও মিনারের দিকে

উম্মাত যে তাকিয়ে থাকে

তাদের-ই মনের বাসনা

নিয়ে যান সোনার মাদিনা।


৫১. আপনার-ই নামের উছিলায়

নবী নূহ-র-ই কিস্তি বেচে যায়

আপনার-ই মুখের-ই লালায়

কাঁটা হাত জোড়া লেগে যায়।


৫২. নবীগো দেখিলে আপনায়

জাহান্নাম হারাম হয়ে যায়

মাওলার-ই দীদার নসিব হয়

জান্নাতের সন্ধান পাওয়া যায়।


৫৩. দিদারে রওজাকে তামান্না-

দিল মে হেঁয় এহি তারানা,

হোঁ কেয়ছে মদীনা যানা-

বেকাল হাঁয় দিলে দিওয়ানা।


৫৪. ছাকি পিয়াজ বুজা দো-

শারাবে উলফত পেলাদো,

খালী হায় মেরা পায়মানা-

বেকাল হ্যায় দিলে দেওয়ানা।


৫৫. আপহি মাহবুবে ছুবহাঁ-

আপহি মামদুহে আ’জম,

আপহি নওশাহে আকরাম-

আপহি নূরে মুজাস্সাম।


৫৬. কাশ হাছেল হো হুজুরী-

দুর হো যায়ে ইয়ে দুরী,

দিল কি ইয়ে হাজুরত হো পুরী-

দেখলো উহ শেকলে নুরী।


৫৭. লায়ে যু ঈমান তুমপর-

কেওনা দে উহ যান তুমপর,

মেহেরবান রহমান তুমপর-

খালকে ছর কোরবান তুমপর।


৫৮. আপহি ছুলতানে মদীনা-

মাহবাতে অহিছ ছাকিনা,

নুরছে মা’মুর ছিনা-

মেশকোছে বেহতর পাছিনা।


৫৯. আরশ্-কা ক্বাবা মদীনা-

পরশ-কা ক্বাবা মদীনা,

ক্বাবা কা ক্বাবা মদীনা-

জান্নাতুল মাওয়া মদীনা।


৬০. সাইয়্যেদো ছারওয়ারে আলম-

মুনেছো গামখারে আলম,

মালেকো মুখতারে আলম-

রওন্কে বাজারে আলম।